» অস্ত্রের মুখে কানাইঘাটের গৃহবধূকে গণধর্ষণ, অাদালতে অভিযোগপত্র দাখিল

প্রকাশিত: ১৪. ডিসেম্বর. ২০২০ | সোমবার

চেম্বার প্রতিবেদক:: অস্ত্রের মুখে কানাইঘাটের গৃহবধূকে গণধর্ষণের ঘটনায় মূল অভিযুক্তসহ ২ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ।

কানাইঘাট জি.আর ১২৫/২০২০ইং এর তদন্তকারী কর্মকর্তা কানাইঘাট থানার ওসি মোঃ শামসুদ্দহা পিপিএম গত ১০ ডিসেম্বর মাননীয় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী ৫নং আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন। তদন্তে ব্রাহ্মণ গ্রামের নুর উদ্দিনের পুত্র মোঃ আবুল কালাম আজাদ উরফে আজাদ মিয়া ও একই গ্রামের আতাউর রহমান উরফে আলতাই-এর পুত্র মোঃ মোক্তার হোসেন মক্তারের বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ প্রাথমিক ভাবে প্রমানিত হয়েছে। ধর্ষনের অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০(সংশোধনী- ২০০৩) এর ৯(৩) তৎসহ দন্ডবিধি ৩৯২ ধারায় মাননীয় আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। মামলাটি বিচারের জন্য মাননীয় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল সিলেট-এ বদলি হয়েছে। উক্ত মামলার বিষয়ে বাদীনির নিয়োজিত এডভোকেট খায়রুল আলম বকুলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন- ধর্ষন ও ডিএনএ টেস্টে আসামিদের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে। তদন্তকারী কর্মকর্তা সঠিক ভাবে তদন্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন। সঠিক ভাবে সাক্ষীপ্রদান করলে আশাকরি বাদীনি ন্যায়বিচার পাবেন।
এর অাগে গত ২ জুলাই রাতে কানাইঘাটের ব্রাহ্মণগ্রামের এক গৃহবধূকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে আবুল কালাম আজাদ ও মুক্তার হোসেন নামের দুই যুবক তাকে ধর্ষণ করে। খবর পেয়ে সিলেটের পুলিশ সুপার ধর্ষকদের গ্রেফতারে কানাইঘাট থানা পুলিশকে নির্দেশ দেন।
এরপর সহকারী পুলিশ সুপার আবদুল করিমের তত্ত্বাবধানে ও কানাইঘাট থানার ওসি মো. শামসুদ্দোহার নেতৃত্বে একাধিক টিম অভিযানে নামে। ৫ জুলাই গোয়াইনঘাটের রাধানগর থেকে ধর্ষণের ঘটনার মূলহোতা আবুল কালাম আজাদকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

[hupso]

সর্বশেষ