» পাথরবাহী ভারী ট্রাক চলাচলে শাহবাগ সহ গুরুত্বপূর্ণ সড়কের বেহাল দশা

প্রকাশিত: ০২. নভেম্বর. ২০২০ | সোমবার

কানাইঘাট প্রতিনিধি ঃ

পাথরবাহী ভারী ট্রাক চলাচলের কারনে কানাইঘাট খেয়াঘাট বাস-স্ট্যান্ড হতে শাহবাগ পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ৭ কিলোমিটার সড়কের বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে। জানা যায় প্রায় ২ বছর পূর্বে মোশাহিদ (র.) সেতুর বাইপাস পয়েন্ট হইতে শাহবাগ পর্যন্ত প্রায় ৭ কিলোমিটার সড়কের সংস্কারের কাজ কয়েক কোটি টাকা ব্যয়ে  সম্পন্ন হয়। স্থানীয়রা জানান সুরমা নদীর খেয়াঘাট এলাকা থেকে প্রতিদিন ভারী ট্রাকযোগে লোভা কোয়ারীর পাথর দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্রির কারনে বর্তমানে ৭ কিলো মিটার সড়কের বেশির ভাগ অংশে বড় বড় গর্ত সহ ভেঙ্গে গিয়ে খানা-খন্দকে পরিনত হয়ে জনসাধারনের চলাফেরা সহ যানচলাচলে মারাত্মক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। সড়কটি রক্ষা করার জন্য কানাইঘাট উপজেলা প্রশাসন ও জকিগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের কাছে পাথর বোঝাই ভারী ট্রাক চলাচল বন্ধের জন্য দাবী জানিয়ে আসলেও কোন কাজের কাজ হচ্ছে না বলে তারা জানান। প্রশাসনের নিরব ভূমিকার কারনে ভারী পাথরবাহী ট্রাক চলাচল অব্যাহত থাকার কারনে ৭ কিলোমিটার সড়কের বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে। প্রতিদিন সড়কের গর্তে পাথর বোঝাই ট্রাক আটকা পড়ে যানঝটের সৃষ্টি হয় এবং অনেক সময় ছোট ছোট যানবাহন গর্তে আটক পড়ে উল্টে গিয়ে দূঘর্টনাও ঘটে এবং জনসাধারনের চলাফেরায় চরম দূভোর্গ পোহাতে হচ্ছে। ভারী ট্রাক চলাচল বন্ধ না করা হলে যে কোন সময় সড়কে যানচলাচল বন্ধ হওয়ার উপক্রম হতে পারে। অপর দিকে অনেকে জানিয়েছেন, কানাইঘাট লোভাছড়ার পাথর কোয়ারীর পাথর ভারী ট্রাক ও ট্রাক্টর দিয়ে দেশেরে বিভিন্ন স্থানে পরিবহনের কারনে জনগুরুত্বপূর্ণ কানাইঘাট পৌর শহরের থানা হইতে দারুল উলূম মাদ্রাসা পর্যন্ত প্রায় ২ কিলোমিটার সড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল গত ২ মাস থেকে বন্ধ রয়েছে। পাথরবাহী ট্রাক ও ট্রাক্টরের অবাধ বিচরনে সড়কের অংশ জুড়ে বিশাল বিশাল গর্ত এবং পিচ উঠে যাওয়ার কারনে এ অবস্থা হয়েছে বলে অনেকে জানিয়েছেন। এছাড়া জকিগঞ্জ উপজেলার আটগ্রাম বাজারের সুরমা নদীর বিস্তৃর্ণ এলাকায় লোভা কোয়ারীর পাথর মজুদ থাকার কারনে সেখান থেকে প্রতিদিন ভারী পাথর বাহী ট্রাক চলাচলের কারনে এলজিইডির গ্রামীন রাস্তার বেহাল অবস্থাও বিরাজ করছে। কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে এসব সড়ক রক্ষা সহ জনদূভোর্গ লাঘবে পাথরবাহী ভারী ট্রাক চলাচল বন্ধের জন্য সড়ক ও জনপথ এবং কানাইঘাট-জকিগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনকে দ্রত এগিয়ে আসার দাবী জানিয়েছেন সবাই।

[hupso]

সর্বশেষ