সর্বশেষ
|
প্রকাশ: রবিবার, আপডেট : ১০ মে ২০২০ ১০:০৫ ঘণ্টা

মায়েদের সঙ্গে কোনো কিছুরই তুলনা হয় না: উম্মে অাহমেদ শিশির

চেম্বার ডেস্ক: আজ বিশ্ব মা দিবস। একজন মায়ের তুলনা পৃথিবীর কোনো কিছুর সঙ্গেই হয় না। মা দিবসে অনেকেই অনেকভাবে পালন করে থাকেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মা’কে নিয়ে বিভিন্ন স্মৃতিচারণ করছেন অনেকেই। মাত্র ক’দিন আগে দ্বিতীয় কন্যার মা হয়েছেন সাকিব আল হাসানের স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশির। ফেসবুকে তিনি মায়েদের নিয়ে দিয়েছেন এক আবেগঘন স্ট্যাটাস।

শিশিরের মতে, মায়েদের যাত্রার সঙ্গে কোনো কিছুই তুলনা হয় না। স্ট্যাটাসে একটি ছবি সংযুক্ত করে তিনি লিখেন,  ‘আমি আমার দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরে এই ছবিটি তুলেছি। স্বাভাবিকভাবে সন্তান প্রসবের সিদ্ধান্ত আমি নিজেই বেছে নিয়েছি। আমি এখনো প্রসব বেদনা অনুভব করি। আমাকে অবশ করার পরও ব্যথাটা যেনো মেরুদণ্ডের মধ্য দিয়ে বয়ে যাচ্ছিল। এই ছবিটি এ কারণেই পোস্ট করেছি কারণ আজ মা দিবস এবং একমাত্র একজন মা-ই জানেন, তার সন্তানকে পৃথিবীতে আনতে শ্রম কক্ষে (লেবার রুম, সন্তান ডেলিভারি দেওয়া হয় যেখানে) কতটা কষ্ট সহ্য করতে হয়েছে তাকে। মা দিবসে আমার মা, শাশুড়ি, নতুন মা ও যারা মা হওয়ার অপেক্ষায় তাদের সকলের জন্য জন্য প্রার্থনা করি ও শুভকামনা জানাই। মায়েদের যাত্রার সঙ্গে কোনো কিছুরই তুলনা হয় না।’

শিশিরের দেওয়া লেবার রুমের ছবিতে সাকিব আল হাসান ও একজন নার্সকে দেখা যাচ্ছে। রমজানের প্রথম রোজার দিন ভোরে (২৪ এপ্রিল, শুক্রবার) যুক্তরাষ্ট্রে সাকিব-শিশিরের কোলজুড়ে দ্বিতীয় সন্তান আসে। বাবা হওয়ার প্রায় আট দিন পর সাকিব-শিশিরের কোলজুড়ে আসা দ্বিতীয় কন্যার নাম রাখা হয় ইরাম হাসান। আরবি ইরাম শব্দের অর্থ জান্নাত।

সাকিব-শিশির বিয়ে করেন ২০১২ সালের ১২ ডিসেম্বর। ‘১২-১২-১২’ তারিখ থেকে দুজন একই ছাদের নিচে বসবাস শুরু করেন। ২০১৫ সালের ৮ নভেম্বর তাদের কোলজুড়ে আসে প্রথম সন্তান আলাইনা হাসান অব্রি।

সাকিব পরিবার এখন যুক্তরাষ্ট্রে আছে। কিছুদিন আগে বাংলাদেশ থেকে সাকিব যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন, তখন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিধি  মোতাবেক সেলফ কোয়ারেন্টিনে ছিলেন ১৪ দিন। তার পর পরিবারের কাছে যান সাকিব।