সর্বশেষ
|
প্রকাশ: শুক্রবার, আপডেট : ০১ মে ২০২০ ০৮:০৫ ঘণ্টা

দুই বছর স্থায়ী হবে করোনার প্রকোপ: মার্কিন গবেষণা

চেম্বার ডেস্ক: মহামারি করোনাভাইরাস অন্তত দুই বছর স্থায়ী হবে বলে যুক্তরাষ্ট্রের এক দল বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন। পৃথিবীর দুই-তৃতীয়াংশ মানুষের শরীরে প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে না ওঠা পর্যন্ত করোনা মহামারি অব্যাহত থাকবে বলে জানান তারা।

এর ব্যাখ্যায় তারা বলেন, এ ভাইরাস অনেকের মধ্যে সংক্রমিত হলেও কোনো উপসর্গ দেখা যায় না। হয়ত কোনো ব্যক্তির মধ্যে শেষ সময়ে এসে এর উপসর্গ দেখা দেয়।

ইউনিভার্সিটি অব মিনেসোটার সেন্টার ফর ইনফেকশাস ডিজিস রিসার্চ অ্যান্ড পলিসি বিভাগের প্রতিবেদন মতে, সাম্প্রতিক সময়ে দেখা দেওয়া অন্যান্য ইনফ্লুয়েঞ্জায় এ লক্ষণ দেখা যায়নি। যে কারণে করোনাকে প্রতিরোধ করা কঠিন হবে।

গবেষকরা বলেন, বিশ্বের সরকারগুলোকে এ বিষয়টি উপলব্ধি করতে হবে যে এ মহামারি সহসা যাবে না এবং মানুষকে বুঝতে হবে যে এ ভাইরাস মহামারি আকারে আগামী দুই বছর পর্যন্ত ফিরে ফিরে আসবে।

তারা জানান, যদিও এ ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে বিশ্বে ভ্যাকসিন তৈরির তোড়জোড় চলছে। তবে এ ভ্যাকসিন বিশ্বের সব প্রান্তে পৌঁছাতে অনেক সময় লেগে যাবে। ২০০৯-১০ সালের ফ্লু প্রতিরোধে যে ভ্যাকিসন আবিষ্কার হয়েছিল, তা দেড় কোটি মানুষের মধ্যে সংক্রমণ এবং ৫০০ মানুষের মৃত্যুর পর যুক্তরাষ্ট্রের হাতে এসেছিল।

ইউনিভার্সিটি অব মিনেসোটার সেন্টার ফর ইনফেকশাস ডিজিস রিসার্চ অ্যান্ড পলিসি বিভাগের পরিচালক মিশেল ওয়েস্টারহোম এবং মেডিকেল পরিচালক ক্রিস্টিন মুর, তুলেন ইউনিভার্সিটির জনস্বাস্থ্য ইতিহাসবীদ জন বেরি ও হাভার্ড স্কুল অব পাবলিক হেলথ এর মাহামারি গবেষক মার্ক লিপসটিচ এ গবেষণা প্রতিবেদন তৈরি করেন।

তারা বলেন, বিশ্বের কয়েক কোটি মানুষকে লকডাউনে রেখে দেশে দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। সরকারগুলো এখন খুব সেচতনভাবে ব্যবসা ও মানুষের যাতায়াতের জায়গাগুলো আবার খুলে দেওয়ার চেষ্টা করছে। তবে করোনাভাইরাস মহামারির আঘাত ২০২২ সালের পর পর্যন্ত ফিরে ফিরে আসবে।