সর্বশেষ
|
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, আপডেট : ২০ ফেব্রু ২০২০ ০৯:০২ ঘণ্টা

কানাইঘাটের রাজাগঞ্জ চারখাই থানায় যাবে না: মুঠোফোনে এমপি মজুমদার

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান ও সিলেট-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাফিজ আহমদ মজুমদার বলেছেন, আমি জীবিত থাকা অবস্থায় রাজাগঞ্জ ইউনিয়নকে চারখাই থানায় অন্তর্ভুক্ত করতে দিব না। আজ সন্ধ্যায়  রাজাগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদে সচেতন নাগরিক সমাজের পক্ষ থেকে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এমপি’র সাথে মোবাইলে কথা বলার সময় তিনি একথা গুলো বলেন।

মতবিনিময় সভায় চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ছাত্রনেতা জাকের আহমদ এর পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক উপ-প্রচার ও প্রকশনা বিষয়ক সম্পাদক, শ্রীহট্ট মিডিয়া লিমিটেডের চেয়ারম্যান মস্তাক আহমদ পলাশ।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন, কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল আজিজ, ইউ/পি সদস্য সুহেল আহমদ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সুহেল রানা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদ মিয়া, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আহমদ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আইন সম্পাদক তারেক হাসান খালেদ, ইউ/পি সদস্য, রফিক মিয়া, নুরুল ইসলাম কালা, মিনহাজ উদ্দিন,আরও উপস্থিত ছিলেন জালাল, মিছবাহ,সাদেক, জামাল, সাজু, ফখরুল, হারুন, লুৎফুরসহ শতাধিক নেতাকর্মী ও সচেতন নাগরিক।

উল্লেখ্য, এসময় দেড়শ বছরের ঐতিহ্য কানাইঘাট থানার অখন্ডতা বজায় রাখতে চারখাই প্রস্তাবিত থানার সাথে কানাইঘাটের রাজাগঞ্জ ইউনিয়নকে অন্তর্ভুক্তি বাতিল করার জন্য প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবী জানানো হয়। অন্যথায় রাজাগঞ্জ ইউনিয়নের নারী-পুরুষ কানাইঘাটের আপামর জনসাধারণকে সাথে নিয়ে যে কোন ধরনের দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলবে। বিয়ানীবাজারের সাথে কানাইঘাটের মানুষের ভৌগলিক দিক থেকে কোন ধরনের সম্পর্ক নেই, সেখানে রাজাগঞ্জের মানুষকে ঠেলে দেয়ার চেষ্টা করা হলে জীবন দিয়ে তা প্রতিহত করা হবে। সড়ক যোগাযোগ ভালো থাকায় রাজাগঞ্জের ইউনিয়নের মানুষ দ্রুত কানাইঘাট থানার মাধ্যমে পুলিশি সেবা পেয়ে থাকেন, সেই দিক বিবেচনা করে চারখাই প্রস্তাবিত থানা থেকে রাজাগঞ্জ ইউনিয়নকে অবিলম্বে বাদ দেয়ার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সহ পুলিশের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের কাছে জোরদাবী জানানো হয়।