সর্বশেষ
|
প্রকাশ: বুধবার, আপডেট : ০৫ ফেব্রু ২০২০ ০৮:০২ ঘণ্টা

সিলেটে আত-ত্বাকওয়া মাসজিদে ইসলামিক হালাকা অনুষ্ঠান সম্পন্ন

কাদিয়ানীদেরকে অবিলম্বে রাষ্ট্রীয়ভাবে
অমুসলিম ঘোষনা করা উচিত
—– ব্রাদার রাহুল হোসাইন

ডেস্ক রিপোর্ট: ভারতের জনপ্রিয় ইসলামিক বক্তা ব্রাদার রাহুল হোসাইন (রুহুল আমীন) বলেছেন, কুরআন সুন্নাহের বাইরে গিয়ে ইসলামে কোন কিছু অনুপ্রবেশ করানোই হচ্ছে বিদআত। এব্যাপারে মুসলিম উম্মাহকে সতর্ক থাকতে হবে। শরীয়াতে কোন বিদআত প্রবেশ করানো হলে সেখান থেকে একটি সুন্নাতকে সরানো হয়। কোন সুন্নাহকে সরানো কোনভাবেই শরীয়াত সম্মত হতে পারেনা। কাদিয়ানীরা কুরআন সুন্নাহের বাইরে গিয়ে মুসলিম পরিচয় বহন করার কোন অধিকার নাই। অবিলম্বে রাষ্ট্রীয়ভাবে তাদেরকে অমুসলিম ঘোষনা করতে হবে।
বুধবার বাদ মাগরিব নগরীর কুমারপাড়াস্থ আত-তাক্বওয়া মাসজিদ এন্ড ইসলামিক সেন্টারে ইসলামিক হালাকা (আলোচনা সভা) অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিপুল সংখ্যক দ্বীনি মুসলমান উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে মহিলাদের জন্য বসা ও সালাত আদায়ের পৃথক ব্যবস্থা করা হয়।


রাহুল হোসাইন আরো বলেন, দ্বীন তৈরী করা আল্লাহর কাজ। আর দ্বীন প্রচার করা নবী রাসুলের কাজ। মহানবী (সাঃ) আমাদের পথ প্রদর্শক। নিজেকে তাকওয়াবান মুত্তাকী হিসেবে গড়ে তুলতে হলে কুরআন সুন্নাহের আলোকে জীবন পরিচালনার বিকল্প নেই। আমাদের সমাজে কুরআন সুন্নাহে নাই এমন কিছু বিদআতি আমল সৃষ্টি করা হচ্ছে যা শরীয়াত সম্মত নয়। এথেকে আমাদের বেরিয়ে এসে কুরআন সুন্নাহের আলোকে ইবাদতের সহীহ পদ্ধতি জেনে নিতে হবে। ইসলামে বাড়াবাড়ির কোন সুযোগ নেই। মনগড়া কিছু প্রবেশেরও সুযোগ নেই। মুসলিম উম্মাহর জন্য কুরআন হাদীসের অনুস্মরণই একমাত্র মুক্তির পথ।
অনুষ্ঠানে আত-ত্বাকওয়া মাসজিদ ও ইসলামিক সেন্টারের সকল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
প্রেস বিজ্ঞপ্তি