সর্বশেষ
|

বিএনপির নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্বে দক্ষিণে মোশাররফ, উত্তরে মওদুদ

চেম্বার ডেস্ক: আসন্ন ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে নির্বাচন পরিচালনা করবেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, আর দক্ষিণে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে স্থায়ী কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

দুই সিটি নির্বাচনে পরিচালনার জন্য দায়িত্ব পেয়েছেন ২১ জন করে সদস্য। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে নির্বাচন পরিচালনার জন্য স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদকে আহ্বায়ক করে সমন্বয়ক করা হয়েছে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও সেলিমা রহমানকে। দক্ষিণে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে আহবায়ক করে মির্জা আব্বাস ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুকে সমন্বয়ক করা হয়েছে। পরে এই দুই কমিটির নেতৃত্বে পরিচালনা কমিটি গঠন করে তারা জানাবেন।

 

এছাড়া দুই সিটি নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন কমিশনন, ডিএমপি কমিশনার ও আইজি প্রিজন বরাবর চিঠি দিবে বিএনপি।

তিনি বলেন, আমরা আগেও বলেছি এখনো বলছি, নির্বাচনে আমরা অংশ নিচ্ছি আমাদের আন্দোলনের অংশ হিসেবে। নির্বাচন পরিচালনা সুষ্ঠুভাবে করার জন্য এই কমিশন যোগ্য নয় একথা আমরা বহুবার বলেছি। গত জাতীয় নির্বাচনে সেটাই প্রমাণিত হয়েছে। তারপরও আমরা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি আমরা মনে করি, একটা গণতান্ত্রিক দল হিসাবে নির্বাচনে অংশ নেয়া আমাদের কাজের মধ্যে পড়ে এবং দায়িত্ব। আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার আরেকটা কারণ হচ্ছে নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু নির্বাচন করতে কতটা অযোগ্য এবং এই সরকার যে একটা সুষ্ঠু নির্বাচন করতে আগ্রহী নয় সেরা জনগণের সামনে তুলে ধরতে। সরকার এবং নির্বাচন কমিশনকে পরীক্ষা করার জন্য আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি। যদিও আমরা জানি নির্বাচন কমিশনকে সরকার অবৈধভাবে ব্যবহার করছে।

 

তিনি আরো বলেন, সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে কমিশনে চিঠি নিয়ে আমাদের একটি ডেলিগেশন টিম যাবে। নির্বাচন সুষ্ঠু করার জন্য আমাদের প্রস্তাব এবং দাবি দাওয়াগুলো সেই চিঠিতে থাকবে। এছাড়া নির্বাচন সুষ্ঠু করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ডিএমপি কমিশনার এবং আইজি প্রিজন বরাবর চিঠি দেয়া হবে। আর গণমাধ্যমগুলো যাতে নিরপেক্ষভাবে সংবাদ প্রচার করতে পারে সেজন্য আমরা বিভিন্ন জায়গায় চিঠি দেব এবং আলোচনা করব।

ইভিএম নিয়ে রোববার গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হবে উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, আজকের (শনিবার) বৈঠকে ইভিএম নিয়ে কথা হয়েছে। আগেও বলেছি এখনও বলছি যে আমরা ইভিএম প্রত্যাখ্যান করেছি। ইভিএম এর উপরে জনমত তৈরি করার জন্য আমরা বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করব।

স্থায়ী কমিটির বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।