সর্বশেষ
|

জালালাবাদ ইমাম ফাউন্ডেশন সিলেটের সভায় নতুন কমিটি গঠন

ক্বারী মতিউর রহমান সভাপতি ও
হাফিজ মাহবুবুর রহমান সেক্রেটারী

জালালাবাদ ইমাম ফাউন্ডেশন সিলেটের এক সভা গতকাল নগরীর একটি অভিজাত রেষ্টুরেন্টের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে ২০২০-২০২১ সালের জন্য ক্বারী মাওলানা মতিউর রহমানকে সভাপতি ও হাফিজ মাওলানা মাহবুবুর রহমানকে সেক্রেটারী করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরী কমিটি গঠন করা হয়। এছাড়াও কমিটিতে ৮জনকে উপদেষ্ঠা হিসেবে রাখা হয়।
ফাউন্ডেশনের সাবেক সভাপতি ও পুনঃনির্বাচিত সভাপতি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব ক্বারী মাওলানা মতিউর রহমানের সভাপতিত্বে এবং বিদায়ী সেক্রেটারী উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মসজিদের ইমাম মাওলানা জামাল আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আন্জুমানে খেদমতে কুরআন সিলেটের সভাপতি প্রফেসর মাওলানা সৈয়দ একরামুল হক। দারসুল কুরআন পেশ করেন বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুস সালাম আল-মাদানী।
ফাউন্ডেশনের নবগঠিত ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অন্যান্য পদে মনোনীত হন, সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ হাফিজ মাওলানা আব্দুল হালিম, সহ-সভাপতি হাফিজ মাওলানা নাসির উদ্দিন, সহ-সভাপতি মাওলানা জামাল আহমদ, সহ-সভাপতি মাওলানা আব্দুল হাফিজ মাশহুদ, সহ-সেক্রেটারী মাওলানা সাদিক সিকান্দার ও হাফিজ মাওলানা শফিকুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা জয়নাল আবেদীন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজ দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, অর্থ সম্পাদক হাফিজ আব্দুল আহাদ, প্রচার সম্পাদক মাওলানা মুখলিছুর রহমান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন ও ইসলামী চিন্তাবিদ প্রফেসর মাওলানা সৈয়দ একরামুল হক বলেন, কুরআন সুন্নাহ থেকে সরে যাওয়ার কারণে বর্তমানে সমাজের সকল স্তরে চরম অরাজকতা ও অস্থিরতা বিরাজ করছে। নৈতিক অবক্ষয়ের কারণে ব্যক্তি পরিবার সকল ক্ষেত্রেই অশান্তি। এথেকে মুসলমানদের রক্ষা করে ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের সকল স্তরে মানবতার মুক্তির সনদ মহাগ্রন্থ আল কুরআন ও মানবতার মুক্তি দুত বিশ^নবী (সাঃ) এর সুমহান আদর্শ ছড়িয়ে দিতে আলেম সমাজকে অগ্রনী ভুমিকা পালন করতে হবে।