|

জন্মনিয়ন্ত্রণে পুরুষের জন্য কন্ট্রাসেপটিভ ইনজেকশন বাজারে আনছে ভারত

চেম্বার ডেস্ক: বিশ্বে এই প্রথম পুরুষের জন্য কন্ট্রাসেপটিভ ইনজেকশন বাজারে আনছে ভারত। তবে এই কন্ট্রাসেপটিভ ইনজেকশন খুব দ্রুত বাজারে আসবে। একবার গ্রহণ করলে প্রায় ১৩ বছর পর্যন্ত কার্যকরী থাকবে।

 

অনেক পুরুষ জন্মনিয়ন্ত্রেণের জন্য অপারেশন করিয়ে থাকেন। তবে এখন আর তার প্রয়োজন হবে না। কারণ এই নতুন কন্ট্রাসেপটিভ ইনজেকশনের মাধ্যমে জন্মনিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

 

একটা সময় ছিল, যখন পরিবার ছোট রাখতে জন্মনিয়ন্ত্রণের বিষয়টি শুধু নারীর ওপর চাপানো হতো। তবে সময় পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে জন্মনিয়ন্ত্রণের জন্য পুরুষরা পরিবারে বিশেষ ভূমিকা রাখছেন।

 

পুরুষের জন্মনিয়ন্ত্রণের এই ইনজেকশনের খোঁজ দিলেন ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চের (আইসিএমআর) গবেষকরা।

 

তাদের পরীক্ষিত এই ইনজেকশনটি বাজারীকরণ থেকে মাত্র এক ধাপ দূরে। ইতিমধ্যে ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়ার (ডিসিজিআই) শিলমোহরের অপেক্ষায় রয়েছে এই ইনজেকশন।

 

আইসিএমআরের গবেষক আরএস শর্মা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, খুব দ্রুত এই ইনজেকশনটি বাজারে আসবে। ইতিমধ্যে তিনটি ধাপে এর নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষ করা হয়েছে। তিনটি ট্রায়ালও দেয়া হয়েছে।

 

৩০৩ পুরুষের ওপর এই ইনজেকশন প্রয়োগ করে দেখা গেছে, ৯৭.৩ শতাংশ ক্ষেত্রেই ফল আমাদের অনুকূলে এসেছে। বাজারীকরণ হলে এটিই হবে পুরুষের জন্য তৈরি বিশ্বের প্রথম কন্ট্রাসেপটিভ ইনজেকশন।’

 

ভারত সরকারের সাবেক পরিবারকল্যাণ সম্পাদক এআর নন্দ বলেন, পুরুষরাও যে গর্ভনিরোধনে এগিয়ে আসতে পারেন, তাতে কোনো অসুবিধা নেই— এই প্রচার এখনও প্রয়োজন। তবেই এই ইনজেকশনের গুরুত্ব মানুষ বুঝবেন।

 

কীভাবে প্রয়োগ হবে এই ইনজেকশন?

 

এই ইনজেকশন প্রয়োগ সার্জারির চেয়ে অনেক সহজ ও কম কষ্টসাধ্য। লোকাল অ্যানাস্থেশিয়া করে এই পলিমারটি টেস্টিক্যালসের কাছে শুক্রাণু বহনকারী টিউবে প্রয়োগ করা হবে। শুক্রাণু নির্গমনকে বাধা দেবে এই ইনজেকশন। একবার গ্রহণ করলে প্রায় ১৩ বছর পর্যন্ত কার্যকরী থাকবে।