|

কানাইঘাটে বিধি বহির্ভূত কাজী নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিতের দাবী

সংবাদ সম্মেলনে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান

কানাইঘাট প্রতিনিধি : সরকারী বিধি লংঘন করে অনিয়ম দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে সিলেটের কানাইঘাট সদর ইউনিয়নের শূন্য পদে নিকাহ ও তালাক রেজিষ্ট্রার নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত করে পুণরায় সুষ্ঠু ভাবে কাজী নিয়োগের দাবী জানিয়েছেন কানাইঘাট সদর ইউপির বীরদল ছোটফৌদ গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা ফখরুল ইসলামের পুত্র মোঃ জাহিদুল ইসলাম। গতকাল সোমবার কানাইঘাট প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠকালে কানাইঘাট সদর ইউনিয়নের নিকাহ ও তালাক রেজিষ্ট্রার শূন্য পদে আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান জাহিদুল ইসলাম বলেন, গত ১০/১০/১৯ইং তারিখে কানাইঘাট উপজেলা সাব-রেজিষ্ট্রার ও কাজী নিয়োগ কমিটির সদস্য সচিব মিরাজ উদ্দিন স্মারক নং- ২৭ এর এক নিয়োগপত্রের মাধ্যমে সদর ইউনিয়নের শূন্য পদে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বিধি মোতাবেক কাজীর লাইসেন্স প্রদানের জন্য নিয়োগ আহবান করেন। আমি সহ আরো ১৩ জন এ পদে সাব-রেজিষ্ট্রার মিরাজ উদ্দিনের কার্যালয়ে আবেদন জমা দেই। বিধি মোতাবেক সদর ইউনিয়নের প্রকৃত স্থায়ী বাসিন্দাগণ উক্ত পদে আবেদনের সরকারী নির্দেশনা ও মুক্তিযোদ্ধা কোটা থাকা সত্তে¡ও সদর ইউনিয়নের বাসিন্দা নয় কানাইঘাট পৌরসভার ধর্মপুর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা মুরাকিব আলীর পুত্র অলিউর রহমান, যার ভোটার নং- ৯১৩৫৫৮৯৫৫৭৯১ এবং কাজী নিয়োগের প্রাপ্ত বয়সের উপরে মুজিবুর রহমান (৪৫) নামের আরো একজন সহ ৩ জনের নাম চূড়ান্ত করে নিয়োগ কমিটির সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান মুমিন চৌধুরী, সদস্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বারিউল করিম খান, সদর ইউপি চেয়ারম্যান মামুন রশিদ ও কমিটির সচিব সাব-রেজিষ্ট্রার মিরাজ উদ্দিন বিধি বর্হিভূত কাজী নিয়োগের প্যানেল গঠন করে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করেছেন বলে আমি সহ উক্ত পদের আবেদনকারী অনেকে জানতে পেরেছি। সদর ইউনিয়নের বাসিন্দা নন এমন ব্যক্তির নাম চূড়ান্ত করে কাজী নিয়োগের প্যানেল চূড়ান্তের সংবাদ পেয়ে আমি জাহিদুল ইসলাম ও কাজী নিয়োগের আবেদনকারী হাফিজ এহসানে এলাহী, হাফিজ রশিদ আহমদ ০৩/১১/২০১৯ইং তারিখে বিধি বর্হিভূত শূন্যপদে কাজী নিয়োগের প্যানেলের বিরুদ্ধে কমিটির সভাপতি, সদস্য ও কমিটির সচিব সাব-রেজিষ্ট্রারের বরাবরে লিখিত দরখাস্ত করার পরও এ ব্যাপারে কোন ধরনের ব্যবস্থা অদ্যবধি পর্যন্ত না নিয়ে গোপনে কাজী নিয়োগের প্যানেল চূড়ান্ত করা হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। সংবাদ সম্মেলনে জাহিদুল ইসলাম সদর ইউনিয়নের বাসিন্দা নয় এবং বিধি বর্হিভূত বিতর্কিত প্যানেল নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত করে সুষ্ঠু ভাবে পুণরায় কাজী নিয়োগের জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ হাফিজ আহমদ মজুমদার সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, সদর ইউনিয়নের বাসিন্দা উপজেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক জুনেদ হাসান জীবান, যুবলীগ নেতা আলমগীর হোসেন ও আবুল হাসনাত।