সর্বশেষ
|

তামিমকেও প্রস্তাব দিয়েছিলেন আগারওয়াল

চেম্বার ডেস্ক:সাকিব আল হাসানকে ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব দিয়েছিলেন ভারতীয় জুয়াড়ি দীপক আগারওয়াল।  খুব অল্প সময়ে তিনবার সাকিবকে বিভিন্নভাবে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব দেন আগারওয়াল।  প্রস্তাব গোপন করে আইসিসি থেকে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন সাকিব। এর মধ্যে এক বছর রয়েছে স্থগিত নিষেধাজ্ঞা।

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার এমন কাজ করলেও দেশসেরা ওপেনার জুয়াড়ি নিয়ে ছিলেন সতর্ক।  ২০১৭ সালের বিপিএলে তামিম ইকবালকে একই জুয়াড়ি প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু তামিম সঙ্গে সঙ্গে জানিয়ে দেন বিসিবির দুর্নীতি দমন কর্মকর্তা মেজর (অব) মোর্শেদকে।

বিসিবির একাধিক শীর্ষ কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন, সাকিবের মতো তামিমকেও ডেকেছিল আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগ।  চেক করা হয়েছিল তার মোবাইল। কিন্তু কোনো কিছুতেই তামিমের সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পাননি তারা। এর পর ক্লিয়ার্ড বলে তামিমকে ছেড়ে দেন আইসিসির কর্মকর্তারা।

আগারওয়াল হোয়াটসঅ্যাপে যে মেসেজ দিয়েছিলেন তামিম সেই স্ক্রিনশট নিয়ে বিসিবির আকসুর কাছে লিখিত অভিযোগ করেছিলেন। পাশাপাশি তামিম ওই নম্বর ব্লকও করে দেন। সব কিছুই অভিযোগ আকারে থাকায় তামিম নিজেকে নির্দোষ প্রমাণিত করতে পারেন খুব সহজেই।

শুধু দুই বছর আগেই নয় এর আগে একাধিকবার জুয়াড়ির প্রস্তাব পেয়েছিলেন তামিম। প্রতিবারই তামিম অভিযোগ করেছেন।  ২০১০ এবং ২০১৩ সালে জুয়াড়ির কাছ থেকে ম্যাচ গড়াপেটার প্রস্তাব পেয়েছিলেন সাকিবও। সঙ্গে সঙ্গে জানিয়েছিলেন দুর্নীতি দমন বিভাগকে। অথচ সিনিয়র সাকিব শেষ দুই বছরে দীপক আগারওয়ালের প্রস্তাব গোপন রেখেছেন।