|

খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়া হচ্ছে : ফখরুল

চেম্বার ডেস্ক: কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা সংকটাপন্ন জানিয়ে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন বেগম খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। তিনি খালেদা জিয়ার সুস্থ অবস্থায় ফিরে আসা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। রোববার (২৭ অক্টোবর) রাজধানীর শেরেবাংলা নগর চন্দ্রিমা উদ্যানে যুবদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলের প্রতিষ্ঠাতা ও পরলোকগত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবর পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে তিনি এ কথা বলেন।

 

কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা কী এবং তিনি বিদেশে চিকিৎসা নিতে চান কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, দেশনেত্রীর স্বাস্থ্যের অবস্থা অত্যন্ত সংকটাপন্ন। তার জীবনের হুমকি দেখা দিয়েছে এখন। সুস্থ অবস্থায় ফিরে না আসার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন যখন কারাগারে যান তখন সবাই দেখেছেন তিনি অসুস্থ অবস্থায় কারাগারে গিয়েছেন। আজকে তিনি বিছানা থেকে উঠতে পারেন না, নিজে খাবার খেতে পারেন না, ঠিক মতো হাঁটতে পারেন না। তিনি যে হাসপাতালে রয়েছেন সেখানে তার প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সম্ভব নয়। আমি বারবার বলেছি, তার জামিন তার অধিকার। তিনি জামিন পেতে পারেন। কিন্তু সরকার ইচ্ছাকৃতভাবে তার জামিন আটকে রেখেছে এবং তার জামিন যেন না হয় সেজন্য তারা ব্যবস্থা নিয়েছে।

 

জাতীয়তাবাদী যুবদল প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে এমন এক সময় এ দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন হচ্ছে যখন বাংলাদেশে কোনো গণতন্ত্র নেই। বর্তমানে যে অবৈধ সরকার জবর দখল করে বসে আছে তারা বাংলাদেশকে একটা ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে, গণতন্ত্রকে হরণ করেছে। যিনি বাংলাদেশের গণতন্ত্রের জন্য সারা জীবন সংগ্রাম করেছেন তাকে অন্যায়ভাবে কারারুদ্ধ করে রেখে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়া হচ্ছে।

 

বিএনপি মহাসচিব বলেন, দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতি থেকে স্পষ্ট বোঝা যায় এই সরকার সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে। কারণ তারা বৈধ নয়। এ জন্য আমরা বারবার বলেছি, জাতি ধর্ম নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আমরা একটি গণত্রান্তিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে চাই। সে জন্য এ সরকারকে অবিলম্বে পদত্যাগ করা উচিৎ। একটি নিরপেক্ষ সরকারের ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচনই এই সংকট সমাধানের একমাত্র পথ।

এ সময় জাতীয়তাবাদী যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন, মহানগর দক্ষিণের সভাপতি রফিকুল ইসলাম মজনু, উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।